মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
হযরত শাহ জামাল রহঃ পবিত্র মাজার শরীফ জামালপুর শহরের প্রাণকেন্দ্রে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়, জামালপুর এর সন্নিকটে অবস্থিত। জামালপুর রেলওয়ে স্টেশন হতে রিক্সা বা ইজিবাইকে করে আসা যায়।
হযরত শাহ কামাল রহঃ এর পবিত্র মাজার শরীফ জামালপুর কিংবা মেলান্দহ হতে সরাসরি বাসে/সিএনজিতে দুরমুট বাজার আসতে হবে।। বাজারের মধ্যেই অবস্থিত।অথবা ট্রেনে দুরমুট স্টেশনে নেমে মাজারে যাওয়া যাবে।
গান্ধী আশ্রম জামালপুর এবং মেলান্দহ হতে সড়ক পথে খুব সহজেই সরাসরি যাওয়া যায়। উভয় স্থান থেকেই দূরত্ব মাত্র ১৫ কি.মি.।
মালঞ্চ মসজিদ, মেলান্দহ জামালপুর হতে সরাসরি বাসে/সিএনজিতে ১০ কি.মি. এসে মালঞ্চ বাজারে নামতে হবে। বাজারের সন্নিকটেই কমপ্লেক্সটি অবস্থিত।
ঝিনাই নদীর উৎসমুখ, জঙ্গলদি মেলান্দহ থেকে রওনা হয়ে নয়ানগর ইউনিয়নের জালালপুর গ্রাম ছাড়িয়ে সাধুপুর ভাংগা ব্রিজ পেরিয়ে ঝিনাই নদীর উৎসমুখ জঙ্গলদি বহিরচড় যাওয়া যাবে। মেলান্দহ শহর থেকে প্রায় ১০ কি.মি. পথ।
লাউচাপড়া পিকনিক স্পট, বকশীগঞ্জ ঢাকা হতে বাসে কিংবা জামালপুর বা শেরপুর হতে সিএনজিতে বকশীগঞ্জ গিয়ে সেখান হতে ১৫ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে ধানুয়া-কামালপুরে যেতে হবে।
দয়াময়ী মন্দির জামালপুর শহরের ০ পয়েন্টে দয়াময়ী মন্দির অবস্থিত। জামালপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে রিক্সা বা ইজিবাইকে যাওয়া যায়।
দেওয়ানগঞ্জের সুগার মিলস দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে এটি অবস্থিত। জামালপুর থেকে এর দুরত্ব ৪৭ কিঃ মিঃ। জামালপুর থেকে সিএনজি করে যাওয়া যায়।
যমুনা সার কারখানা সরিষাবাড়ী হতে এটির দুরত্ব ১২ কিঃমিঃ। জামালপুর থেকে সিএনজি করে কিংবা সরিষাবাড়ী থেকে ইজিবাইক বা সিএনজি করে এখানে যাওয়া যায়।